একদল উজ্জীবিত ও প্রতিভাবান তরুণদের নিয়ে “স্বপ্নের গাইবান্ধা সংগঠন”

admin

বিশেষ প্রতিনিধি (আসাদুজ্জামান মিলন):”স্বপ্নের গাইবান্ধা সংগঠন” একটি অরাজনৈতিক, অমুনাফাভোগী ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। একদল উজ্জীবিত ও প্রতিভাবান তরুণ দাঁড়া এই সংগঠনের যাত্রা শুরু ২০১৬ সালের ২৩ অক্টোবর। পরবর্তীতে ২০১৭ সালে ২৮ জানুয়ারি দেওয়ান রসিকে সভাপতি এবং ওয়াহিদ সানি কে সাধারণ সম্পাদক করে ৫০ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। যেখানে উপদেষ্টা হিসেবে আছেন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল রাকিবুর রহমান (বীর প্রতীক), ডেপুটি কমিশনার অফ পুলিশ তোরাব শামসুর রহমান, ভোরের ডাক পত্রিকার জিএম মাকসুদুর রহমান, বিশিষ্ট নাট্যকার ঢাকা মেডিকেল নিউক্লিয়ার মেডিসিন এর প্রধান ডা. এজাজ, লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল, ধানমন্ডি ক্লাবের পরিচালক শেখ ইকবাল হোসেন খোকন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী দেওয়ান আতিকুজ্জামান এবং uniaid কোচিং-এর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক কুতুব ই জাহান।

মূলত তিনটি উদ্দেশ্য নিয়ে এই সংগঠনের যাত্রা শুরু হয়।
১. ক্রীড়া
২. শিক্ষা
৩. গাইবান্ধা কে ব্র্যান্ডিং করা।

ক্রীড়া সেক্টরে উন্নয়নের জন্য দুইজন জাতীয় দলের প্লেয়ার আমাদের উপদেষ্টা হিসেবে আছেন মোহাম্মদ রুবেল এবং সোহরাওয়ার্দী শুভ। যারা বিভিন্ন সময় গাইবান্ধা সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন। গাইবান্ধার ক্রিকেট একাডেমি গুলোতে উন্নত মানের ক্রিকেট ইন্সট্রুমেন্ট প্রদান করা হয় স্বপ্নের গাইবান্ধা সৌজন্যে। গাইবান্ধার উদীয়মান ক্রিকেটারদের ঢাকায় ক্লাব পাওয়ার ব্যাপারে স্বপ্নের গাইবান্ধার ভূমিকা যথেষ্ট। এছাড়া বিভিন্ন সময় গাইবান্ধার ক্রিকেটারদের নিয়ে ঢাকায় ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজন করা হয় এবং বিকেএসপিতে ভর্তির ব্যাপারে গাইবান্ধার কোন খেলোয়ার যাতে কোনো বৈষম্যের শিকার না হয় সেই ব্যাপারে যথেষ্ট সজাগ থাকে স্বপ্নের গাইবান্ধা।

প্রতিবছর গাইবান্ধা থেকে এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের দিয়ে ঢাকায় আগত শিক্ষার্থীদের নিয়ে ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট সেমিনার করা হয়। সেখানে তাদের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরা হয় এবং তার সমাধানে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা করে স্বপ্নের গাইবান্ধা সংগঠন।

সর্বোপরি আমরা সর্বদা চেষ্টা করি গাইবান্ধাকে ব্রান্ডিং করতে। গাইবান্ধার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সারা বাংলাদেশ এবং বিশ্বের মধ্যে তুলে ধরার যার জন্য আমাদের একটি পেজে আছে যেখানে গাইবান্ধা জেলার সোশ্যাল পেজের মধ্যে সর্বোচ্চ। এই মুহূর্তে ফলোয়ার ২৩০৫০ যা প্রতিদিনই বৃদ্ধি পায়। আমাদের এই পেজ ইতিমধ্যে নানা মহলে আলোচিত হয়েছে গাইবান্ধা সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য অনেক উদীয়মান ফটোগ্রাফার আগ্রহের সাথে প্রতিদিন গাইবান্ধার বিভিন্ন সৌন্দর্য স্থান, মানুষের বিভিন্ন সমস্যা, সর্বোপরি গাইবান্ধাকে সারা বাংলাদেশে উপস্থাপন করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

এই মুহূর্তে স্বপ্ন গাইবান্ধার সংগঠনের মোট সদস্য ১০০ এবং প্রতি বছর গাইবান্ধার বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ নিয়ে ঢাকায় একটি গেট টুগেদার আয়োজন করা হয়। কমিটির সদস্যদের প্রতিমাসে সামান্য কিছু মাসিক চাঁদার মাধ্যমে এই সংগঠনের ছোট পরিসরে ফান্ড তৈরি করা হয়। এই সংগঠনের পাশে এরইমধ্যে দুটি সুনামধন্য প্রতিষ্ঠান সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন, আশা এনজিও এবং শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব।

শুধুমাত্র ক্রীড়া, শিক্ষা এবং গাইবান্ধাকে ব্রান্ডিং- এ সীমাবদ্ধ নেই, সংগঠনটি কাজ করছে গাইবান্ধা এমনকি দেশের দূর্যোগকালীন মূহুর্তেও৷

স্বপ্নের গাইবান্ধা সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি দেওয়ান রসি বলেছেন, “আগামীতে এই সংগঠন আরো বড় পরিসরে কাজ করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। আপনাদের সকলের সহযোগিতা ও দোয়া একান্ত কাম্য”

Next Post

হাটুর ব্যাথা প্রতিরোধে করনীয়

দৈনন্দিন জীবনে কাজকর্ম করতে গিয়ে যে প্রধান সমস্যা দেখা যায় তা হল, হাঁটুতে ব্যথা। এটি একটি বার্ধক্যজনিত রোগ। এছাড়াও মহিলারা সাধারনত ৪০ বছরের পর ঋতুচক্র বন্ধ হয়ে যাবার পর হরমোনের তারতম্যের কারনে অস্থি কনিকা ক্ষয় প্রাপ্ত হয়ে এই রোগ দেখা দেয়। তাছাড়াও খেলোয়াড়দের খেলার সময় অসম অবস্থানের কারনে, আঘাত পেলে […]